“একটি শিক্ষানীয় গল্প”

মসজিদে জুতা চুরি করে এক চোর।
কিন্তু একদিন সে ঘোষনা শোনলো
যে তাকবীর ওয়ালার সাথে ৪০ দিন
৫ ওয়াক্ত নামাজ আল্লাহর খুশির জন্য
মনোযোগ দিয়ে পড়বে তার কাছে
বাদশা তার একমাএ মেয়ে বিয়ে দিবে।
তাই, জুতা চোর, জুতা চুরি বাদ দিয়ে
এখন প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ সুন্দর
করে আদায় শুরু করে। এ ভাবে
চলতে চলতে বাদশা ৩৯ দিন খবর নিয়ে
জানতে পারলো জুতা চোর যুবকটিই
একটানা ৩৯ দিন এক টানা ৫ ওয়াক্ত নামাজ
সময়মত আদায় করেছে। তাই বাদশা
আগামিকাল এসে তাকে রাজ দরবারে এসে,
বাদশার মেয়েকে বিয়ে করতে বলে।
কিন্তু, যুবকের ৪০ দিন, ৪১, ৪২ দিন যায়
কিন্তু সে আর আসেনা। বাদশা তালাশ
করতে করতে যুবককে খুজে বলতে
লাগলো – “তোমাকে জোর করে বিয়ে
করতে বলছিনা, কেন আসলেনা তুমি ‘
‘ যুবক বলতে লাগলো : “ও, বাদশা :
আপনি জানেননা ! আমি ভাল
মানুষ নই, জুতা চোর! বাদশা বলে :তবুও
আমি তোমার কাছেই মেয়ে বিয়ে দিব!
এবার, যুবকের চোখ হতে পানি টপ টপ
করে পড়ছে। সে বলতে শুরু করে :৪০ দিনের
দিনও আমি রাজকুমারি আর রাজ্য হাসিল
করার স্বপ্ন দেখছি কিন্তু বাদশা, ৪০ তম
দিনের শেষ নামাজের শেষ রাকাতের
শেষ সেজদায় আমি যেন জান্নাতের প্রশান্তি
পেতে শুরু করলাম।আমার হৃদয় প্রশান্তিতে
ভরে গেছে, জীবনের সব খুশি ভুলে গেলাম।
আমার দয়াময় আল্লাহ যেন ভালবাসা
ভরে দিয়েছে।। আমার হৃদয় পাল্টিয়ে গেছে।
আজ আমি নারী চাই না, রাজ্য চাইনা,
চাই শুধু নামাজের সেজদার সেই জান্নাতি প্রশান্তি……..”

ঠিক তেমনি মহান আল্লাহ তায়ালার রাজি খুশি
উদ্যেশে যদি আমরা নামায, রোজা, হজ্জ,
যাকাত আদাই করি, তাহলে আল্লাহ আমাদের
অনেক এরকম অজানা নেয়ামত দান করবেন

★মহান আল্লাহ আমাকে এবং সবাইকে পাচ
ওয়াক্ত নামাজ সহীহ ভাবে আদায় করার
তৌফিক দান করুন।
……আমিন।