রাতে মাঠে নামছে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা !!

আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে রাতে মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল।আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ ২০১০ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন স্পেন। আর ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ ২০১৪ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন জার্মানি।

ব্রাজিল-জার্মানির ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত পৌনে একটায়। যা সরাসরি সম্প্রচার করবে সনি টেন-২। আর আর্জেন্টিনা ও স্পেনের ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১টা ৩০টায়। এই ম্যাচটি দেখা যাবে স্কাই স্পোর্টস (ফুটবল) চ্যানেলে। ইএসপিএন ডিস্পোর্টস ও ওয়াচইএসপিএন এও দেখা যাবে।

গেল শুক্রবার রাতে রাশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ ব্যবধানে জিতেছে ব্রাজিল। আর ইতালির বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে জিতেছে আর্জেন্টিনা। আগের প্রীতি ম্যাচে জার্মানির মাঠে ১-১ গোলে ড্র করেছে স্পেন।

ইনজুরিতে থাকায় নেইমার খেলছেন না ব্রাজিলের হয়ে। অন্যদিকে ইতালির বিপক্ষে দলের সঙ্গে থেকেও ইনজুরির কারণে খেলেননি লিওনেল মেসি। আজ মাঠে নামার আগে যদি তিনি পুরোপুরি ফিট থাকেন তাহলে মাঠে নামানো হবে তাকে। ২০০৬ থেকে ২০১০ পর্যন্ত স্পেনের সঙ্গে তিনটি প্রীতি ম্যাচ খেলেছে আর্জেন্টিনা। তার মধ্যে স্পেন জিতেছে ২টিতে। একটিতে জিতেছে আর্জেন্টিনা। সবশেষ ২০১০ সালে স্পেনকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা। তার আগে ২০০৬ ও ২০০৯ সালে ঘরের মাঠে আর্জেন্টিনাকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়েছে স্পেন। আবারো সেই ঘরের মাঠে আর্জেন্টিনাকে আতিথ্য দিতে যাচ্ছে তারা। আবারো পারবে কী হারিয়ে দিতে মেসি-দিবালাদের।

অন্যদিকে ২০০২ থেকে ২০১১ পর্যন্ত জার্মানির বিপক্ষে চার ম্যাচের দুটিতে জিতেছে ব্রাজিল। একটিতে জিতেছে জার্মানি। আর অপরটি হয়েছে ১-১ গোলে ড্র। ২০১১ সালে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিলকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। তার আগে ২০০৫ সালে ফিফা কনফেডারেশন কাপে ৩-২ গোলে জার্মানিকে হারিয়েছে ব্রাজিল। ২০০৪ সালে প্রীতি ম্যাচে জার্মানি ও ব্রাজিলের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়েছিল। তার আগে ২০০২ সালে বিশ্বকাপে জার্মানিকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল ব্রাজিল।

অবশ্য ২০১৪ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ঘরের মাঠে ব্রাজিলকে ৭-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল জার্মানি। চার বছর পর আবার সেই জার্মানির মুখোমুখি সেলেকাওরা। জার্মানির ঘরের মাঠে পারবে কী তারা মুলার-ক্রুসদের হারিয়ে দিতে?