তিন শ্রেণীর নারীকে বিয়ে করলে সংসারে আল্লাহর গজব নেমে আসবে …জেনে নিন বিস্তারিত !!

এই তিন শ্রেণীর নারীকে বিয়ে করলে – ইসলামে তিন শ্রেনীর নারীদেরকে বিয়ে করতে মানা রয়েছে। যদি কেউ তা অমান্য করে তাহলে তাদের সংসারে আল্লাহ তায়ালা গজব নেমে আসবে।

যথাঃ

১) রক্ত সম্পর্কের কারনে হারাম, এই সম্পর্কের ৭ জন রয়েছে। (মা, কন্যা, বোন, ভাতিজী, ভাগিনী, খালা এবং ফুফু)।

২) দুগ্ধ সম্পর্ক বা দূধ পান করার কারনে হারাম, এই সম্পর্কেরও ৭ জন রয়েছে। (দূধ মা, দূধ কন্যা, দূধ বোন, দূধ ভাতিজী, দূধ ভাগিনী, দূধ খালা এবং দূধ ফুফু)।

৩) বৈবাহিক সম্পর্কের কারনে হারাম: সৎ মা, পুত্র বধু বা পৌত্র বধু (নাতির বউ), শ্বাশুড়ী, দাদি শ্বাশুড়ী বা নানী শ্বাশুড়ী এবং স্ত্রীর অন্য পক্ষের কন্যাসমূহ।

আরও দেখুনঃ
আয়াতুল কুরসির ফজিলত

Apr 4, 2018
এক সাহাবা এক মহিলার গোসল করার দৃশ্য দেখায় যা হয়ে ছিল তার…

Apr 2, 2018
অনুরুপভাবে, স্ত্রী ও তার বোন, স্ত্রী ও তার ফুফু, স্ত্রী ও তার খালাকে একত্রে বিবাহ করে একত্রে স্ত্রী হিসাবে রাখা হারাম।

মহান আল্লাহ বলেছেন, “যে নারীকে তোমাদের পিতা-পিতামহ বিবাহ করেছে তোমরা তাদের বিবাহ করো না।

কিন্তু যা বিগত হয়ে গেছে। এটা অশ্লীল, গযবের কাজ এবং নিকৃষ্ট আচরণ। তোমাদের জন্যে হারাম করা হয়েছে তোমাদের মাতা, তোমাদের কন্যা, তোমাদের বোন, তোমাদের ফুফু, তোমাদের খালা, ভ্রাতৃকণ্যা; ভগিনীকণ্যা তোমাদের সে মাতা, যারা তোমাদেরকে স্তন্যপান করিয়েছে, তোমাদের দুধ-বোন,

তোমাদের স্ত্রীদের মাতা, তোমরা যাদের সাথে সহবাস করেছ সে স্ত্রীদের কন্যা যারা তোমাদের লালন-পালনে আছে। যদি তাদের সাথে সহবাস না করে থাক, তবে এ বিবাহে তোমাদের কোন গোনাহ নেই।

তোমাদের ঔরসজাত পুত্রদের স্ত্রী এবং দুই বোনকে একত্রে বিবাহ করা; কিন্তু যা অতীত হয়ে গেছে।

নিশ্চয় আল্লাহ ক্ষমাকরী, দয়ালু।” (সূরা নিসাঃ আয়াতঃ ৪:২২-২৩ এবং ইমাম বুখারী সংগৃহিত হাদিসঃ ২৬৪৫, ৫১০৯)।

টাকার অভাবে বিয়ে করছেন না সালমান খান …!!

বয়স ৫২ পেরিয়েও কেন তিনি বিয়ে করছেন না সকলের কাছে এই প্রশ্নটাই বড় হয়ে দাঁড়িয়েছে। অবশেষে বিয়ে না করার কারণ জানালেন ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ অভিনেতা।

সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে অতিথি হয়ে এসেছিলেন সালমান। ওই অনুষ্ঠানেও তাকে সেই কাঙ্খিত প্রশ্নটারই মুখোমুখি হতে হয়, অর্থাৎ বিয়ে করছেন না কেন? উত্তরে নায়ক বলেন টাকার অভাবে তিনি বিয়ে করছেন না।


সালমানের কথায়, ‘বিয়ে এখন অনেক বড় খরুচে বিষয় হয়ে গেছে। এখন সকলেই বিয়েতে লাখ লাখ, কোটি কোটি টাকা খরচ করেন। আমার পক্ষে এত টাকা খরচ করা সম্ভব নয়। আর এই কারণেই আমি এখনও অবিবাহিত রয়ে গেছি।’

পালিয়ে বিয়ে করা কি ঠিক ?? এই বিষয়ে মহানবী (সা.) এর স্পষ্ট ব্যাখ্যা …!!

আধুনিক যুগে অনেক তরুণ-তরুণীকেই দেখা যায়, বাবা-মাকে না জানিয়ে নিজের ইচ্ছেমতো পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করে থাকে। তরুণ-তরুণীদের এ ধরনের বিয়ে ইসলামের দৃষ্টিকোণ থেকে কি বৈধ? অনেকেই তা জানে না।

তরুণ-তরুণীদের এরূপ লুকিয়ে বিয়ে করার বিষয়ে মহানবী (সা.) স্পষ্ট ব্যাখ্যা দিয়েছেন, ‘যে নারী তার অভিভাবকের (বাবা-মা কিংবা বড়ভাই এক কথায় অভিভাবক) অনুমতি ছাড়া বিয়ে করবে তার বিয়ে বাতিল, তার বিয়ে বাতিল, তার বিয়ে

বাতিল’। [হাদিসটি তিরমিযি (১০২১) ও অন্যান্য গ্রন্থকার কর্তৃক সংকলিত এবং হাদিসটি সহীহ]

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর এই ব্যাখ্যায় স্পষ্ট প্রতীয়মান হয় যে, বাবা-মা কিংবা অভিভাবকদের বিনা অনুমতিতে পালিয়ে বিয়ে করা ইসলাম সমর্থন করে না। নবীজী (সা.) এই রূপ বিয়েকে সরাসরি বাতিল বলে অ্যাখ্যায়িত করেছেন।
সুতরাং যে কাজ আল্লাহর রাসুল করতে নিষেধ করেছেন সেই কাজ থেকে সবাইকে বিরত থাকতে হবে।

বিয়ে প্রতিটি মুসলমানদের জন্য ফরজ। এ বিষয়ে মহান আল্লাহ তা’য়ালা বলেন, ‘আর তোমরা তোমাদের মধ্যে অবিবাহিত নারী-পুরুষদের বিবাহ দাও’। [সূরা নূর, ২৪:৩২]

আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদীসে এসেছে, ‘যে নারী তার অভিভাবকের অনুমতি ব্যতীত বিয়ে করল, তার বিয়ে বাতিল, তার বিয়ে বাতিল, তার বিয়ে বাতিল’। (তিরমিযি)

নারীকে তার উপযুক্ত স্বামী গ্রহণ করার অর্থ তাকে মুক্ত স্বাধীন ছেড়ে দেয়া নয় যে, যাকে ইচ্ছা সে স্বামী হিসেবে গ্রহণ করবে, যার বিয়ের খারাপ প্রভাব পড়ে তার আত্মীয় ও পরিবারের ওপর।

নারী অভিভাবকের সাথে সম্পৃক্ত, অভিভাবক তার ইচ্ছাকে দেখবে এবং তাকে সঠিক পথ বাতলাবে, তার বিবাহের দায়িত্ব নেবে, সে নিজে নিজের আকদ সম্পন্ন করবে না, যদি সে নিজের আকদ নিজে সম্পন্ন করে বাতিল বলে গণ্য হবে।
অন্য হাদীসে এসেছে- ‘অভিভাবক ব্যতীত নারীর কোনো বিয়ে নেই’।

এ দু’টি হাদীস ও এ জাতীয় অন্যান্য হাদীস প্রমাণ করে যে, অভিভাবক ব্যতীত নারীর বিয়ে বৈধ নয়।

২০১৮ সালেই বিয়ে করছেন রণবীর-দীপিকা…!!

বলিউডে এখন বসন্তের হাওয়া! কিছুদিন আগেই বিয়ে করে ফেলেছেন আনুশকা শার্মা। একই পথে অভিনেত্রী শ্রিয়া শরণ, ইলিয়ানাও। সূত্রের খবর, এবার চার হাত এক হতে চলেছে রণবীর ও দীপিকার।

আর এই বিয়ে কোনো ডেস্টিনেশন ম্যারেজ হিসাবেই হতে চলেএছ। অনেকটাই বিরাট আর আনুশকার বিয়ের মতো। আর এই বিয়ে ২০১৮ সালের মধ্যেই তাঁরা সেরে ফেলতে চলেছেন বলে খবর।

বিশেষ সূত্রে জানা যাচ্ছে, এই বিয়ে ডেস্টিনেশন ম্যারেজ হিসাবে সংগঠিত হতে চলেছে। রণবীর দীপিকা দুজনেই যেহেতু সমুদ্র আর উপকূল ভালোবাসেন, তাই সম্ভবত কোনো বিচ ডেস্টিনেশনেই এই বিয়ে হতে চলেছে।

মূলত, দীপিকার বাড়ির সূত্রে জানা গিয়েছে, বিয়ের একটি অনুষ্ঠান বেঙ্গালুরুতে অর্থাৎ দীপিকার বাড়িতে হবে, আরেকটি রিসেপশন হবে মুম্বাইতে। ফলে আপাতত বলিউড ‘দীপবীর’ বিয়ে নিয়ে মাততে চলেছে।

খুব শীঘ্রই বিয়ে বলিউড তারকা সোনম কাপুরের …।।

আসছে জুনে দীর্ঘদিনের প্রেমিক আহুজাকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন বলিউডের অভিনেতা অনিল কাপুরের মেয়ে।

এই বিয়ের বিষয়ে প্রথম দিকে বাবা অনিল কাপুর আহুজাকে নিয়ে কিছুটা দ্বিধাগ্রস্ত ছিলেন। সব বাবাই মেয়েদের প্রেমিক নিয়ে প্রথম প্রথম একটু চিন্তায় থাকেন। কিন্তু অনিল কাপুর আর তাঁর স্ত্রী সুনিতা এখন আনন্দকে ঘরের ছেলে করে নিয়েছেন।

কাপুরদের যেকোনো পার্টিতে আনন্দের সাবলীল উপস্থিতি দেখে তা বেশ বোঝা যায়। এ ছাড়া সোনমের ছোট ভাই নায়ক হর্ষবর্ধন কাপুরের সঙ্গে নাকি হবু ভগ্নিপতির ভীষণ ভাব। তাই সোনম আর আনন্দের বিয়ে এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।

মজার ব্যাপার হলো, জুন মাসেই মুক্তি পেতে যাচ্ছে সোনম কাপুরের ছবি ‘ভিড়ে দি ওয়েডিং’। সোনমদের পারিবারিক প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের এই ছবির গল্প একটি বিয়েকে ঘিরে। আগামী ১ জুন ছবিটি মুক্তি পাবে ।

সম্প্রতি কলকাতার একটি গয়নার দোকানে সোনমকে কেনাকাটা করতেও দেখা গেছে। প্রত্যেক্ষ দর্শীদের মতে এ সময় তাঁর সঙ্গী ছিলেন আনন্দ আহুজার মা।

বলিউড সুপারস্টার সালমান খানকে বিয়ে করতে চান ঢালিউড নায়িকা পপি।

দুজনই অবিবাহিত। আবার বয়সটাও একটু বেশি। তাই হয়তো বলিউড সুপারস্টার সালমান খানকে বিয়ের ইচ্ছে পোষণ করতে একটুও দ্বিধা করলেন না দেশের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী সাদিকা পারভিন পপি।

গতকাল বুধবার বেসরকারি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের একটি অনুষ্ঠানে তিনি মনের কথা প্রকাশ করেন।
শাহরিয়ার নাজিম জয়ের উপস্থাপনায় ওই অনুষ্ঠানে র‌্যাপিড প্রশ্নোত্তর পর্বে পপি বলেন, ‘সালমান খানকে বিয়ে করতে চাই, তবে শাহরুখ খানকেও ভালো লাগে।’

কতগুলো প্রেম করছেন- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘মিডিয়ায় কাজ করার কারণে অনেক ব্যস্ত সময় পার করতে হয়েছে। প্রেম করার সুযোগ হয়নি।
প্রেম করাটা অনেক কঠিন কাজ।

একটা মানুষ বহু মানুষের সঙ্গে প্রেম করতে পারে না। তবে পর্দায় অনেক প্রেম করেছি।’
নিজের বিয়ে প্রসঙ্গে পপি আরও বলেন, ‘বিয়ে নিয়ে তেমন কোন পরিকল্পনা নেই। ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে আমি অনেক হ্যাপি। কোটিপতি একজন স্বামীকে নিয়ে আমার আলাদাভাবে খুশি হতে হবে এমনটা আমি ভাবি না। কোটিপতি স্বামী ছাড়া আমি অনেক হ্যাপি।’