আর্জেন্টিনাকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে স্পেন !!

স্পেনের সামনে দাঁড়াতেই পারলো না মেসিবিহীন আর্জেন্টিনা। সবশেষ ম্যাচে জার্মানির সঙ্গে ১-১ ড্র করা স্পেন এবার ইসকোর হ্যাটট্রিকে আর্জেন্টিনাকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে। মেসির শিবির শেষ কবে এক ম্যাচে এতো গোল হজম করেছে তা-ও খুঁজে বের করতে হবে।

মঙ্গলবার রাতে ইস্তাদিও ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটেনো মাঠে ম্যাচের ১২ মিনিটেই ডিয়েগো কস্তার গোলে লিড নেয় ২০১০ এর বিশ্বকাপজয়ীরা। ২৭ মিনিটে প্রতিপক্ষে শিবিরে আঘাত হানের ইসকো। ৩৯ মিনিটে আর্জেন্টিনার হয়ে ওটামেন্ডি গোল করলে বিরতির আগে ব্যবধান কমায় আর্জেন্টিনা।

বিরতি থেকে ফিরে যেন আরও ধারালো হয়ে ওঠে স্পেনের আক্রমণ। ৫২ মিনিজে ইসকো নিজের দ্বিতীয় গোল, ৫৫ মিনিটে থিয়াগো আলকানটারা ও ৭৩ মিনিটে লাগো অ্যাসপাস গোল করলে ৫-১ ব্যবধানে অনেকটাই জয়ের কাছে চলে যায় স্পেন।

৭৪ মিনিটে শেষ তুলির টান দিয়ে নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন ইসকো।

এর পর আর কোনও গোল না হলে ৬-১ গোলের বিশাল জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আসন্ন রাশিয়া বিশ্বকাপে ফেবারিটের তকমাধারী স্পেন।

এদিকে রাতের অপর ম্যাচে বার্লিনে জার্মানিকে ১-০ গোল হারিয়ে ৪ বছর আগের ক্ষত মুছে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে ব্রাজিল। জয়সূচক একমাত্র গোলটি করেছেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস।

মঁপেলিয়েকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে পিএসজি।

শনিবার রাতে মঁপেলিয়েকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে পিএসজি।
চোট কাটিয়ে ফেরা নেইমারের জোড়া গোল, এডিনসন কাভানির গোলের রেকর্ড ও ডি মারিয়ার এক গোলে জয়ে ফিরেছে পিএসজি।

লিওঁর কাছে হারের পরের ম্যাচেই এমন জয় কোচ উনাই এমেরির জন্য স্বস্তির। তাতে শীর্ষে থাকা পিএসজির টেবিলে পয়েন্ট দাঁড়াল ২৩ ম্যাচে ৫৯।

ম্যাচের ১১ মিনিটেই এগিয়ে যায় পিএসজি। নেইমারের দেয়া পাস রাবিওর সঙ্গে দেয়া-নেয়া করে জালে জড়ান কাভানি।

উরুগুয়ে ফরোয়ার্ডের পিএসজির জার্সিতে এটি ১৫৭তম গোল, যাতে টপকে গেছেন দলটির সাবেক তারকা জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের আগের রেকর্ড ১৫৬ গোলকে।

ম্যাচের ৪০ মিনিটে স্পট কিক থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার।

বিরতির পর ৭০ মিনিটে ডি মারিয়া আরেকদফা ব্যবধান বাড়ান। তুলিতে শেষ আঁচর টানেন নেইমারই। ৮২ মিনিটে কাভানির বাড়ানো বলে চলতি লিগে নিজের ১৭তম গোলটি আদায় করে নেন ব্রাজিলিয়ান ওয়ান্ডারবয়।