ইসলামে কিছু নিষিদ্ধ কাজ,যা আমরা প্রায়সময় করে থাকি- সকলে শেয়ার করুন !!

♻☞ ইসলামে কিছু নিষিদ্ধ কাজ,যা আমরা প্রায়সময়
করে থাকি- সকলে শেয়ার করুন , নিজে জানুন, আরেকজন মুসলিমকে জানান …

উপুর হয়ে বুকের উপরে ভর দিয়ে শোয়া নিষিদ্ধ, কারণ এইভাবে শয়তান শোয়।
– সহীহ বুখারী।

বাম হাতে খাওয়া বা পান করা নিষিদ্ধ, কারণ বাঁ হাতে শয়তান খায়।
– রিয়াদুস সালেহীন।

পশুর হাড় দিয়ে ইস্তিঞ্জা করা নিষিদ্ধ, কারণ আল্লাহর নাম নিয়ে জবাই করা
প্রাণীর হাড়গুলো যা মানুষেরা ফেলে দেয়, তা মুসলিম জিনদের খাবার।
– সহীহ বুখারী।

মোরগ আল্লাহর রহমতের ফেরেশতাদেরকে দেখতে পায়, একারণে মোরগের ডাক শুনে “আল্লাহুম্মা ইন্নি আস- আসুকা মিং ফাযলিকা” এই দুয়া পড়ে আল্লাহর অনুগ্রহ চাইতে হয়। হিসনুল মুসলিম।

গোসলখানায় প্রসাব করা যাবে না।।
________ আল হাদিস (ইবনে মাজাহঃ ৩০৪)

কেবলামুখি বা তার উল্টো হয়ে প্রসাব, পায়খানা করা যাবে না।।
_________ সহিহ বুখারিঃ ৩৯৫

গুলি বা তীরের নিশানা প্রশিহ্মণের জন্য প্রাণী ব্যবহার করা যাবে না।।
_________ মুসলিমঃ ৫১৬৭


ইহুদি, খ্রিষ্টান ও মুশরিক কাউকে বিয়ে করা যাবে না।।
_________ আল কোরআন।

স্বামী ব্যাতিত অন্য কারোর জন্য সাজা হারাম।
_________ আল কোরআন, (আহজাবঃ ৩৩)

মুর্তি কেনা, বেঁচা, পাহারা দেওয়া হারাম।।
_________ আল কোরআন (মাইদাহঃ ৯০, ইবরাহীমঃ ৩৫)

কারো মুখমণ্ডলে আঘাত করা যাবে না।।
________ মুসলিমঃ ৬৮২১

কাপড় পরিধাণ থাকা সত্তেও কারো গোপন অঙ্গের জায়গার দিকে দৃষ্টিপাত করা যাবে না।।
________ মুসলিম ৭৯৪

আল্লাহ ব্যাতিত কারো নামে কসম করা যাবে না। বাপ দাদার নাম,
কারো হায়াত, মসজিদ বা কোরআন এর নামে কসম করা, মাথায় নিয়ে সত্যতা প্রকাশ করা যাবে না।।
__________ আবু দাউদ৩২৫০, নাসায়ীঃ ৩৭৭৮।

কোন প্রাণীকে আগুনে পুড়িয়ে মারা যাবে না।।
_________ আবু দাউদ ২৬৭৭

হে আল্লাহ! আমাদেরকে উপরোক্ত কাজগুলো থেকে বিরত থাকার তৌফিক দান করুন। যারা আল্লাহর নিকট চায়, আমিন

সালমানকে স্বামী দাবি করে সালমানের বাসায় হাজির এক নারী …।।

নিরাপত্তাকর্মীদের চোখ এড়িয়ে সালমানের বাসায় ধাতব একটি বস্তু নিয়ে ঢুকে পড়েন জনৈক নারী। মজার ব্যাপার হলো, ধরা পড়ার পর তিনিকে সালমানকে নিজের স্বামী বলে দাবি করেন।

ডেকান ক্রনিকেলসের খবরে প্রকাশ, সালমানের গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টে ঢোকার পর তিনি সালমানের ফ্ল্যাট খুঁজে বের করেন। সেখানে অনেকক্ষণ দরজা ধাক্কা দেওয়ার পর অ্যালার্ম বেজে ওঠে এবং পুলিশের পরিবর্তে খবর দেওয়া হয় দমকলকর্মীদের। তাঁরা এসে মেয়েটিকে অ্যাপার্টমেন্টের বাইরে নিয়ে যায়।

সালমানের বাসার ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানায়, ‘দমকলকর্মীরা মেয়েটিকে বের করার আগে তাঁর হাত থেকে ধাতব বস্তু নিয়ে নেয়। তাঁকে বেশ আক্রমণাত্মক এবং মানসিক ভারসাম্যহীন মনে হচ্ছিল। সে বারবার একটাই কথা বলছিল, সালমান আমার স্বামী। তবে অবাক করা বিষয়, কেউ পুলিশে খবর দেয়নি।’ বান্দ্রা পুলিশ স্টেশনের ইন্সপেক্টর পণ্ডিত ঠাকুর জানান, এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

এবারই প্রথম নয়, এর আগেও গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টে দেখা মিলেছিল অনুপ্রবেশকারীর। দালানের ভেতরে এক বাথরুম থেকে আটক করা হয় তাঁকে। এবারের ঘটনার পর আরো শক্ত করা হয়েছে গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের নিরাপত্তাব্যবস্থা। তবে যাকে নিয়ে এ ঘটনা, সেই সালমান খানই ঘটনাস্থলে ছিলেন অনুপস্থিত। ‘রেস-৩’ ছবির শুটিংয়ের জন্য বর্তমানে আবুধাবিতে অবস্থান করছেন তিনি।

নেইমারবিহিন পিএসজিকে বিদায় করে কোয়ার্টার ফাইনালে রিয়াল…।।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও কাসেমিরোর গোলে পিএসজিকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে পা রেখেছে জিনেদিন জিদানের দলই।

নেইমারবিহীন পিএসজিকে বিদায় করে টানা অষ্টমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলো জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা।

র্দান্ত জয় ছিনিয়ে নিলেও ম্যাচের প্রথমার্ধে অগোছালো ফুটবল খেলতে দেখা গেছে রিয়ালকে। অগোছালো হলেও গোলশূন্য ড্র নিয়ে বিরতিতে যায় দুদল। দ্বিতীয়ার্ধে গোল পেতে মরিয়া হয়ে ওঠে রিয়াল-পিএসজি। ৫১ মিনিটে ভাসকেজের ক্রসে হেডে বল ঠিকানায় পাঠান ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো।

পর্তুগিজ সুপারস্টারের এ গোলের সৌজন্যে শেষ আটে ওঠা অনেকটা নিশ্চিত হয় রিয়ালের।

সমতায় ফিরতে প্রাণপণ চেষ্টা চালায় পিএসজি। ৬৬ মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন মার্কো ভেরাত্তি। ১০ জনের দলে পরিণত হলেও চেষ্টা থামেনি প্যারিসের দলটির। ফলে গোলের দেখাও পায় তারা। ৭১মিনিটে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান এডিনসন কাভানি।

তবে এগিয়ে যেতে সময় লাগেনি রিয়ালের।

৮০ মিনিটে গোল করে সব শঙ্কার কালো মেঘ সরিয়ে দেন কাসেমিরো।

শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলের জয়ে ক্লাবের জন্মবার্ষিকীতে সমর্থকদের উৎসব-আনন্দে ভাসান জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা।

পবিত্র কোরআন শরীফ স্পর্শ করে কসম করা কি জায়েজ …?? ইসলাম কি বলে …।।

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় বেসরকারি একটি টেলিভিশনের জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দর্শকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ।

প্রশ্ন: কোরআনকে স্পর্শ করে কসম করার বিধান আছে কি?

উত্তর: না, কোরআনে কারিমকে স্পর্শ করে কসম করার বিধান নেই। কসম আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের নামে হয়। কিন্তু কোরআনকে স্পর্শ করে যদি কেউ কসম করে যেহেতু আল্লাহর কালাম, আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কথা, তাই এটিও একধরনের কসম। অধিকাংশ ওলামায়ে কেরাম এ কথা বলেছেন যে, কসমের হুকুমের মধ্যে আসবে। তাই এই কসম যদি কেউ করে থাকেন, তাহলে সেই ব্যক্তিকে অবশ্যই সেই কসমটি পূরণ করতে হবে। এটি বিধান নয় কিন্তু কসম করলে সেটি পূরণ করতে হবে, ভঙ্গ করা যাবে না। কারণ এটি আল্লাহর কালাম।

আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কালাম হওয়ার কারণে কোরআনের মর্যাদা কোনোভাবেই ক্ষুণ্ণ করা সুযোগ নেই। আল্লাহর নামে কসম করলে যেমন তার মর্যাদা ক্ষুণ্ণ করা জায়েজ নেই তেমনিভাবে কোরআন আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কালাম হওয়ার কারণে এর মর্যাদা কোনোভাবে ক্ষুণ্ণ করা জায়েজ নেই। তাই এটি কসমের হুকুমের মধ্যে আসবে, তিনি কসমটি ভঙ্গ করতে পারবেন না, তিনি কসম রক্ষা করবেন।

চলতি এসএসসি পরীক্ষা বাতিল করে নতুনভাবে নিতে রুল…।।

চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তা ফাঁস হওয়ার খবর আসে গণমাধ্যমে। পরীক্ষার আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া প্রশ্নের সাথে মিল খুঁজে পাওয়া যায় পরে অনুষ্ঠিত সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার প্রশ্নের।

এমনকি হাতে-নাতে ফাঁস হওয়া প্রশ্নসহ কয়েকজনকে আটকও করা হয়েছে। সরকার প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে নানা উদ্যোগও নিয়েছে। কিন্তু তার কিছুই যেন কার্যকর হচ্ছে না। বরং শুরু থেকে এ পর্যন্ত যে কয়টি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে তার সব কয়টিরই প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে।

২০১৮ সালের চলমান মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা কেন বাতিল করে নতুনভাবে পরীক্ষা নেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

এ ছাড়া এসএসসি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা তদন্তে বিচার বিভাগীয় কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আজ বৃহস্পতিবার বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারপতি ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

অভিনয় পছন্দ না হওয়ায় নায়িকা তামান্না ভাটিয়াকে লক্ষ্য করে জুতা নিক্ষেপ …।

ভারতের এ সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় চলচ্চিত্র তারকা তামান্না ভাটিয়া আজ সোমবার হায়দরাবাদের হিম্মতনগরে এক গয়নার দোকান উদ্বোধন করেন। এ সময় বাইরে থেকে এক যুবক ছুটে এসে দোকানের ভেতরে থাকা তামান্না ভাটিয়ার দিকে জুতা ছুড়ে মারেন। কিন্তু তা একটুর জন্য এই নায়িকার গায়ে লাগেনি।

নারায়ণগোদা পুলিশ স্টেশনের একজন কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যম পিটিআইকে জানিয়েছেন, ৩১ বছর বয়সী এই যুবকের নাম করিমুল্লাহ। তিনি বিটেক গ্র্যাজুয়েট। জিজ্ঞাসাবাদের পর জানা গেছে, এ সময়ের একটি ছবিতে তামান্না ভাটিয়ার অভিনয় তার পছন্দ হয়নি। এই নায়িকার ওপর তার প্রচণ্ড ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। এ কারণে তিনি নায়িকাকে জুতা ছুড়ে মেরেছেন। এই ব্যক্তিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

তামান্না ভাটিয়া মুম্বাইয়ের মেয়ে হলেও তিনি তেলেগু ও তামিল ছবিতে বেশি অভিনয় করেছেন। পাশাপাশি অভিনয় করেছেন হিন্দি ছবিতেও।

স্টাইল করে চুল কাটা নিয়ে ইসলাম যা বলে !!

বর্তমান সময়ে অনেক ছেলেরাই বিভিন্ন স্টাইলে চুল কাটান। মাথার কিছু অংশের চুল মুড়িয়ে বা ছোট করে অবশিষ্ট কিছু অংশের চুল রেখে দেয়া হয়। এভাবে চুলের কাটিং করা সম্পূর্ণ নিষেধ।

একটি হাদিসে এসেছে, হযরত রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, এভাবে চুল কাটাকে ‘কাযাআ’ শব্দ দ্বারা ব্যক্ত করেছেন। ‘কাযাআ’ শব্দের আভিধানিক অর্থ, আকাশের বিক্ষিপ্ত মেঘমালা। আকাশের কিছু স্থানে মেঘ থাকে আবার কিছু স্থানে মেঘ থাকে না। এভাবে মেঘ সদৃশ্য স্টাইলে মাথার কোথাও বা কোনো অংশে চুল রাখা এবং কোনো অংশের চুল ছাঁটা ইসলামি শরিয়তের দৃষ্টিতে নিষেধ ও বর্জনীয়।
হযরত উমর (রা.) বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) ‘কাযাআ’ করতে অর্থাত মাথার কিছু অংশের চুল মুড়িয়ে অবশিষ্ট অংশের চুল রাখতে নিষেধ করেছেন। (বুখারী ও মুসলিম)

ইমাম বুখারি (রা.) তার বুখারি শরিফের পোশাক অধ্যায়ে এই নিষেধাজ্ঞা সম্বলিত একটি পরিচ্ছেদ বিন্যস্ত করেছেন। মুসলিম শরীফের এক হাদিসে আছে, প্রিয় নবী (সা.) একটি শিশুর চুল এভাবে দেখে এরূপ চুল কাটতে নিষেধ করে বলেন, হয়তো সব চুল মু-িয়ে ফেল অথবা সব চুল রেখে দাও। (মেশকাত শরিফ ৩২৪)

আরেক বর্ণনায় পাওয়া যায়- হাজ্জাজ ইবনে হাসান বলেন, আমরা একবার হজরত আনাস (রা.) এর ঘরে গেলাম। তিনি তখন আমাকে বলনে, আমার বোন আমাকে বলেছেন, একবার নবিজী (সা.) আমাদের ঘরে এলেন। তুমি তখন ছোট। তোমার মাথার চাঁদির দুই অংশে কেবল কিছু চুল ছিলো। তিনি তোমার মাথায় হাত বুলিয়ে দিলেন এবং তোমার জন্য বরকতের দোয়া করলেন। আর অন্যদের উদ্দেশ্যে বললেন, তার মাথার ওই দুই অংশের চুলগুলিও মু-িয়ে দাও। কেননা তা ইহুদিদের কৃষ্টি-সংস্কৃতি। (সুনান আবী দাউদ: ৪১৯৭